• A
  • A
  • A
শিবের দ্বাদশ জোর্তিলিঙ্গ ঘৃষ্ণেশ্বর

মহারাষ্ট্রের দৌলতাবাদ থেকে ১১ কিলোমিটার ও আওরঙ্গাবাদ থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে বেরুল গ্রামে এই মন্দিরটি অবস্থিত। মন্দিরটি ইলোরা গুহার কাছে অবস্থিত। শিবের পবিত্রতম বারোটি জোর্তিলিঙ্গ মন্দিরের মধ্যে অন্যতম এটি। ঘৃষ্ণেশ্বরকেই সর্বশেষ জোর্তিলিঙ্গ বলে মনে করা হয়।


মন্দিরটি লাল পাথরের তৈরি। এতে পাঁচটি চূড়া দেখা যায়। বর্তমান মন্দিরটি অষ্টাদশ শতাব্দীতে নির্মিত। মন্দিরের গায়ে হিন্দু দেবদেবীর মূর্তি খোদিত রয়েছে। সংরক্ষিত শিলালিপিটি পর্যটকদের কাছে বিশেষ আকর্ষণের। মন্দিরের উপরে লাল পাথরে দশাবতারের মূর্তি খোদিত আছে। দরবার কক্ষটিতে ২৪টি স্তম্ভ আছে। এই স্তম্ভগুলিতেও সুন্দর চিত্র খোদাই করা আছে। দরবার হলে নন্দিকেশ্বরের মূর্তি বিরাজমান। গর্ভগৃহের আয়তন ১৭ ফুট বাই ১৭ ফুট।



শিবপূরাণ অনুসারে, দক্ষিণ ভারতে দেবগিরি পর্বতে ব্রহ্মবেত্তা সুধর্ম নামে এক ব্রাহ্মণ তাঁর স্ত্রী সুদেহাকে নিয়ে বসবাস করতেন। সন্তান ছিল না বলে সুদেহার মনে দুঃখ ছিল। সন্তানলাভের সবরকম চেষ্টা করেও তিনি ব্যর্থ হয়েছিলেন। সুদেহা তখন তাঁর বোন ঘুশ্মার সঙ্গে তাঁর স্বামীর বিয়ের প্রস্তাব দেন। বোনের উপদেশ অনুসারে, ঘুশ্মা ১০১টি শিবলিঙ্গের পুজো করেন এবং সেগুলিকে নিকটবর্তী হ্রদে বিসর্জন দেন। শিবের আশীর্বাদে ঘুশ্মার একটি সন্তান হয়। পরবর্তীকালে তাঁর বিয়ে দেওয়া হয়। সুদেহা তাঁর বোনের প্রতি ঈর্ষান্বিত হন। ঈর্ষার বশে সুদেহা একদিন ঘুশ্মার ছেলেকে খুন দেহটি হ্রদের ফেলে দেন। পরেরদিন সকালে ঘুশ্মা ও সুধর্ম উঠে নিত্যকর্মে নিযুক্ত হন। সুদেহাও উঠে রোজকার কাজ শুরু করেন। ঘুশ্মার পুত্রবধূ অবশ্য তাঁর স্বামীর বিছানায় রক্তের দাগ দেখতে পান। ভয় পেয়ে তিনি সব কথা তাঁর শাশুড়িকে বলেন। ঘুশ্মা শিবের পুজো শুরু করেন। “যিনি আমাকে পুত্র দিয়েছেন, তিনিই আমার পুত্রকে রক্ষা করবেন।”, এই বলে তিনি শিবের নাম জপ করতে থাকেন। শিব তখন আবির্ভূত হয়ে বলেন, “তোমার ভক্তিতে আমি তুষ্ট হয়েছি। তোমার বোনই তোমার পুত্রকে হত্যা করেছিল।” ঘুশ্মা তখন শিবকে অনুরোধ করেন সুদেহাকে ক্ষমা করে দিতে। শিব তাতে সম্মত হন এবং ঘুশ্মাকে বর চাইতে বলেন। ঘুশ্মা বলেন, “আপনি যদি অনন্তকাল এখানে জোর্তিলিঙ্গ রুপে অবস্থান করেন। তাহলে আমি খুশি হব।”


ঘুশ্মার অনুরোধে শিব সেখানে জোার্তিলিঙ্গ রুপে অবস্থান করেন। ঘুশ্মার নামানুসারে এই লিঙ্গের নাম হয় ঘুশ্মেশ্বর বা ঘৃষ্ণেশ্বর। পাশের হ্রদটির নাম হয় শিবালয়।

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES