• A
  • A
  • A
ইতিহাস খুঁজতে ঘুরে আসুন সোমনাথ মন্দির

সোমনাথ মন্দির ভারতের একটি প্রসিদ্ধ শিব মন্দির। গুজরাতের পশ্চিম উপকূলে অবস্থিত সৌরাষ্ট্র অঞ্চলের ভেরাভলের নিকটে প্রভাস ক্ষেত্রে এই মন্দির অবস্থিত। এটি শিবের দ্বাদশ লিঙ্গের মধ্যে পবিত্রতম। সোমনাথ শব্দটির অর্থ “চন্দ্র দেবতার রক্ষাকর্তা”। সোমনাথ মন্দিরটি ‘চিরন্তন পীঠ’ নামেও পরিচিত। কারণ, অতীতে ছয়’বার ধ্বংসপ্রাপ্ত হলেও মন্দিরটি পরে পুনর্নির্মাণ করা হয়।

ছবি সৌজন্য : টুইটার@GujaratTourism


পৌরাণিক উপাখ্যান : সোমনাথ মন্দিরের আরাধ্য দেবতা শিব সোমেশ্বর মহাদেব নামে পরিচিত। পূরাণ অনুসারে, সত্যযুগে সোমেশ্বর মহাদেব ভৈরবেশ্বর, ত্রেতাযুগে শ্রাবণিকেশ্বর ও দ্বাপর যুগে শ্রীগলেশ্বর নামে পরিচিত ছিলেন। চন্দ্র তাঁর স্ত্রী রোহিণীর প্রতি অত্যধিক আসক্তি বশত অন্য ২৬ জন স্ত্রীকে উপেক্ষা করতে থাকেন। এই ২৬ জন ছিলেন দক্ষ প্রজাপতির কন্যা। এই কারণে দক্ষ চন্দ্রকে ক্ষয়িত হওয়ার অভিশাপ দেন। শাপ থেকে মুক্তি পেতে প্রভাস তীর্থে চন্দ্র শিবের আরাধনা করলে শিব তাঁর অভিশাপ অংশত নির্মূল করেন। এরপর ব্রহ্মার উপদেশে কৃতজ্ঞতাবশত চন্দ্র সোমনাথে একটি সোনার শিবমন্দির নির্মাণ করেন। পরে রাবণ রৌপ্যে, কৃষ্ণ চন্দনকাঠে এবং রাজা ভীমদেব পাথরের মন্দিরটি পুনর্নির্মাণ করেছিলেন।

প্রাচীন এই মন্দির ঘিরে জড়িয়ে রয়েছে বহু ইতিহাস। শোনা যায়, সোমনাথ মন্দিরের স্বর্ণভান্ডারের লোভে গজনির সুলতান মামুদ ১০২৪ খ্রিস্টাব্দ থেকে বহুবার এই মন্দির আক্রমণ করেছিলেন। মন্দিরের রত্ন লুট করেন তিনি। এরপর ইন্দোরের রানি অহল্যাবাঈ নতুন করে এই মন্দির তৈরি করেন। ১৯৫১ সালে সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের সহযোগিতায় মন্দিরের আমূল সংস্কার করা হয়। তাঁর মৃত্যুর পর মন্দিরের কাজ এগিয়ে নিয়ে যান অপর এক মন্ত্রী কে এম মুন্সি। সোমনাথ মন্দির বর্তমানে শ্রী সোমনাথ ট্রাস্ট দ্বারা পরিচালিত হয়।



কীভাবে যাবেন : হাওড়া থেকে সরাসরি আমেদাবাদ যাওয়ার ট্রেন যাচ্ছে। সেখান থেকে সোমনাথ মেল ও গিরনার এক্সপ্রেসে করে সোমনাথের আগের স্টেশন ভেরাভল। ভেরাভল থেকে ৫ কিমি দূরে সোমনাথ মন্দির।

থাকবেন কোথায় : সোমনাথ মন্দিরের কাছেই রয়েছে মন্দির কমিটির অনেকগুলি গেস্ট হাউজ়। এখানে থাকার ভাল ব্যবস্থা রয়েছে। এখানে মান অনুযায়ী ডাবল বেডের হোটেল ভাড়া ৫০০-১৫০০ টাকার মধ্যে।

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  জনমত পঞ্চমত ২০১৮

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  MAJOR CITIES