• A
  • A
  • A
ডাইনি অপবাদে ১৬ দিন ঘরছাড়া চার পরিবার

তপন, ৭ জুন : ডাইনি অপবাদে গত ১৬ দিন গ্রামছাড়া চারটি পরিবার। পুলিশ, প্রশাসনকে জানিয়েও কোনও লাভ না হওয়ায় অবশেষে জেলাশাসক ও জেলা পুলিশ সুপারের দ্বারস্থ হলেন পরিবারের সদস্যরা। বিধায়ক বাচ্চু হাঁসদাকেও বিষয়টি জানানো হয়।

ফোটো - ডাইনি অপবাদে ঘরছাড়ারা, ভিডিও-স্থানীয় বিধায়ক বাচ্চু হাঁসদা ও ঘরছাড়াদের মধ্যে একজনের বক্তব্য


জানা গেছে, তপন থানার রামচন্দ্রপুরের চকবলীপুকুর এলাকার এক ব্যক্তি কিছু দিন আগে মারা যায়। গ্রামের এক ব্যক্তি হঠাৎ মারা যাওয়ায় গ্রামবাসীরা ঝাড়খণ্ডের এক ওঝার শরণাপন্ন হয়। সেই ওঝা জানায় গ্রামের চারটি পরিবারের মোট সাতজন আছে যাদের জন্য ওই ব্যক্তি মারা গেছে। এরপরেই ওই সাতজনকে ডাইনি অপবাদ দেওয়া হয়। পাশপাশি ওই সাতজনকে ডাইনি অপবাদ থেকে মুক্তি অর্থাৎ শুদ্ধিকরণের জন্য মাথা পিছু ১৬ হাজার টাকা ও এক মন ধান লাগবে বলে জানানো হয়। তা দিতে না পারায় বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়।


কবিরাজ মুর্মু, সুকুরমণি মুর্মু, লক্ষ্মী মার্ডিরা দীর্ঘ ১৬ দিন ধরে ঘরছাড়া। আবার জানা গেছে, এই ঘটনায় ওঝার সঙ্গ দিয়েছে স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেসের পঞ্চায়েত সদস্যর স্বামী চতুর হেমরম। প্রশাসন ও পুলিশে জানিয়ে কোনও লাভ না হওয়াতেই অবশেষে ঘরছাড়ারা বালুরঘাট ফাউন্ডেশন আদিবাসী অ্যাকাডেমি নামে একটি স্বেছাসেবী সংস্থার দ্বারস্থ হয়। ওই সংস্থার সহযোগে ঘরছাড়া পরিবারগুলি আজ জেলা পুলিশ সুপার, জেলাশাসক ও মন্ত্রী বাচ্চু হাঁসদার সঙ্গে দেখা করে। এরপরে পুরো বিষয়টি জানতে পেরে ঘরছাড়াদের ঘরে ফেরাতে উদ্যোগ নেন মন্ত্রী। বিষয়টি পুলিশ ও প্রশাসনকে দেখার জন্য নির্দেশ দেন তিনি। অন্যদিকে, টাকা চাওয়ার ঘটনা স্বীকার করে নেয় এলাকাবাসী। তারা জানায়, টাকা দিতে না পারায় ওই পরিবারগুলিই ঘর ছেড়ে চলে গেছে।

অন্যদিকে, এই বিষয়ে স্থানীয় বিধায়ক বাচ্চু হাঁসদা জানান, ডাইনি অপবাদে ঘরছাড়া রয়েছে চারটি পরিবার, এই প্রথম বিষয়টি জানতে পারলাম। বিষয়টি জানা মাত্র তপন থানা, জেলাশাসক ও জেলা পুলিশ সুপারকে বিষয়টি দেখতে বলেছি।

জেলাশাসক সঞ্জয় বসু জানান, বিষয়টি তিনি শুনেছেন। আধিকারিক ও গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে। এছাড়াও আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকায় কুসংস্কার দূর করতে লাগাতার প্রচারাভিযান চালানো হবে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES