• A
  • A
  • A
পাষণ্ড ! চুলের মুঠি ধরে টেনে হিঁচড়ে মাকে নিয়ে গেল যুবক

ঝাড়গ্রাম, ৯ জুলাই : দশমাস দশ দিন গর্ভে ধরে জন্ম দিয়েছিলেন। বুকের দুধ খাইয়ে বড় করেছেন। সাধ্যমতো মিটিয়েছেন অন্য সব প্রয়োজনও। সেই মায়ের চুলের মুঠি ধরে রাস্তায় টেনে-হিঁচড়ে নিয়ে যাচ্ছে ছেলে। কাঁদতে কাঁদতে মা বারবার বলছেন, "মরে গেলাম রে, ছেড়ে দে"। সেকথা কানে না তুলছে না ছেলে। শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়গ্রামের শক্তিনগরে। মহিলার উপর নির্যাতনের ভিডিও মোবাইলে তুলে রেখেছিলেন এক প্রতিবেশী। পরে সেই ভিডিও তিনি ফেসবুকে পোস্ট করেন। মুহূর্তে তা ভাইরাল হয়ে যায়।

দেখুন মারধরের ভিডিও


অভিযুক্তের নাম গণেশ পাত্র। আর নির্যাতিতা মা হলেন বছর তেষট্টির পূর্ণিমা পাত্র। গণেশ ও তার স্ত্রী গীতার সঙ্গে একই বাড়িতে থাকলেও পূর্নিমাদেবী আলাদা রান্না করে খান। লোকের বাড়িতে তিনি কাজ করেন। গণেশ দিনমজুরের কাজ করে। গণেশের স্ত্রীও অন্যের বাড়িতে কাজ করে।
প্রতিবেশীদের অভিযোগ, গণেশ প্রায়ই মদ খেয়ে এসে মাকে গালিগালাজ ও মারধর করে। কেউ প্রতিবাদ করলে তাকেও অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ দেয়। মারধরও করে। তবে সেখানেই ক্ষান্ত হয় না সে, পরে সেই প্রতিবেশীর নামে থানায় অভিযোগ জানাতে যায়। শনিবার দুপুরে গণেশ বাড়িতে এসে তার মাকে মারধর শুরু করে। পরে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে, পূর্ণিমাদেবীর চুলের মুঠি ধরে রাস্তায় টানতে টানতে নিয়ে যাচ্ছে গণেশ। বাড়ির সামনের অনেকটা রাস্তা মাকে সে টেনে নিয়ে যাচ্ছে। পূর্ণিমাদেবী তখন কাঁদছেন আর ছেলেকে ছেড়ে দিতে বলছেন। এক প্রতিবেশী গণেশকে বলছিলেন, "এটা বাড়াবাড়ি হচ্ছে।" গণেশের পালটা উত্তর, "কীসের বাড়াবাড়ি?"


এক প্রতিবেশী বলেন, "আমরা প্রতিবাদ করলে আমাদের গালিগালাজ ও মারধর করতে আসে। মাকে বাড়ি থেকে তাড়ানোর জন্য প্রায় চেষ্টা করে ও। এই বয়সে উনি যাবেন কোথায়? আমরা আগে পুলিশকে এবিষয়ে জানিয়েছিলাম। কোনও লাভ হয়নি। তাই ভিডিও করে ফেসবুকে পোস্ট করা হয়েছে।"

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES