• A
  • A
  • A
লটারির কোটি আসবে ঘরে ? দেখে নিন ক্লিক করে

কলকাতা, ৬ নভেম্বর: আর মাত্র দুটো দিন। তারপরই পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য লটারির কোটিপতি বানানোর খেলা। দীপাবলি বাম্পার। নানা এজেন্সি, ডিস্ট্রিবিউটরের দোকানের সামনে বাজছে মাইক। "টিকিট কাটুন, হয়ে যান কোটিপতি।" মানুষ দেদার কাটছে সেই টিকিট। যদি ভাগ্যে শিকে ছেঁড়ে। দিওয়ালি যদি কপাল ফেরায়। কিন্তু, কোটি টাকার এই খেলায় আদৌ কোটি টাকা পান ক্রেতারা ? কোথায় হয় লটারির খেলা ? কীভাবে পেতে হয় জেতা টাকা ? সব প্রশ্নের সুলুক-সন্ধান ইনাডু বাংলায়।

লটারির ক্রেতা ও বিক্রেতার বক্তব্য


শিয়ালদার এক এজেন্সিতে টিকিট কাটছিলেন গঙ্গেশ চক্রবর্তী। প্রশ্নটা করতেই ঘাড় নাড়লেন। না, জানা নেই কিছুই। তার মত একই হাল বিকাশ চৌধুরির। গ্যাঁটের টাকা দিয়ে লটারির টিকিট কাটছেন, অথচ জানেন না কোথায় হয় খেলা, কীভাবে পেতে হয় টাকা।




কোথায় হয় পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য লটারির খেলা ? কীভাবে ? কারা করেন লটারি? এই লটারি কী আদৌ সরকারি ?

শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয়, সিকিম, মেঘালয় কিংবা অন্যান্য রাজ্যেরও লটারির টিকিট পাওয়া যায় পশ্চিমবঙ্গে। সেই লটারির খেলাগুলি চালায় সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকারগুলিই। বলাই বাহুল্য, মোটেই অবৈধ নয় এই টিকিট ব্যবসা। লটারি টিকিট কাটাও অপরাধ নয়। পশ্চিমবঙ্গের ক্ষেত্রে এই লটারি সংক্রান্ত দপ্তরটি অর্থ দপ্তরের একটি শাখা। যার ম্যানেজিং ডিরেক্টর হিসেবে রয়েছেন একজন IAS অফিসার। রয়েছেন WBCS পদমর্যাদার এক যুগ্ম অধিকর্তাও। মূলত তাঁদের দায়িত্বেই চলে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য লটারির যাবতীয় কর্মকাণ্ড। রাজ্য লটারি দপ্তরটি কলকাতার গণেশ চন্দ্র অ্যাভিনিউয়ে। বেশ বড়সড় অফিস। রয়েছেন প্রচুর সরকারি কর্মী। দায়িত্ব নিয়ে পুরো বিষয়টি সামলান তাঁরা। বলাই বাহুল্য লটারির গোটা বিষয়টি পরিচালনা করেন এই কর্মীরাই। এই দপ্তরেরই এক সিনিয়র অফিসার জানালেন, উইকলি লটারির খেলাগুলি হয় এই দপ্তরেই। তবে দীপাবলি, পুজো, হোলি বাম্পার কিংবা নববর্ষ বাম্পারের খেলা হয় পাশের তারাপদ মেমোরিয়াল হলে। নির্দিষ্ট একটি মেশিনের মাধ্যমে হয় ড্র। ড্রয়ের সময় উপস্থিত থাকতে পারেন যে কেউ। ওই অফিসার আরও জানালেন, স্বচ্ছতা বজায় রাখতে পুরোটাই ভিডিয়ো রেকর্ডিংয়ের ব্যবস্থা রয়েছে। এখন ইন্টারনেটে তা লাইভ দেখানো হচ্ছে। তাঁর দাবি, এর ফলে স্বচ্ছতা নিয়ে মানুষের মনে প্রশ্ন অনেকটাই দূর হয়েছে।

জানা গেছে, বিভিন্ন বাম্পার ছাড়াও সোমবারের পাশাপাশি সপ্তাহের প্রতিদিনই হয় রাজ্য লটারির খেলা। পশ্চিমবঙ্গের ক্ষেত্রে, রাজ্যের বেশ কয়েকটি নদীর নামের সঙ্গে মিলিয়ে রাখা হয়েছে সাপ্তাহিক সেই সব লটারির খেলার নাম। প্রতি মঙ্গলবার হয় বঙ্গলক্ষ্মী তোর্ষা, বুধবার বঙ্গলক্ষ্মী রায়ডাক, বৃহস্পতিবার বঙ্গলক্ষ্মী ভাগীরথী, শুক্রবার বঙ্গলক্ষ্মী অজয়, শনিবার বঙ্গলক্ষ্মী দামোদর, রবিবার বঙ্গলক্ষ্মী ইছামতির খেলা হয় পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য লটারির অফিসে।




কীভাবে নিতে হয় পুরস্কার ?

বিখ্যাত লটারি বিক্রেতা সংস্থার এক কর্তা জানাচ্ছেন, তাঁদের বিক্রিত টিকিটে যদি পুরস্কার ওঠে, তবে ক্রেতাকে টাকা পাইয়ে দেওয়ার সব দায়দায়িত্ব তাঁরাই নিয়ে নেন। তাঁদের কাছে টিকিট নিয়ে গেলেই হল। রাজ্যের সব ক'টি এজেন্সি এবিষয়ে ক্রেতাকে সাহায্য করে। তবে রাজ্য লটারির দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, যেকোনও বিজেতা যদি সরাসরি রাজ্য লটারির অফিসে আসেন তবে তিনি টিকিটটি দেখিয়ে দাবি পেশ করতে পারেন। সঙ্গে আনতে হয় সরকারি পরিচয়পত্র। ফিল আপ করতে হয় একটি ফর্ম। সে বিষয়ে সাহায্য করেন ওই দপ্তরের কর্মীরাই। তারপর সেটি জমা দিলেই হল।

টাকা ক্যাশে পাওয়া যায়, নাকি ব্যাঙ্কের মাধ্যমে ?

এক এজেন্সির দাবি, তারা ক্যাশেই টাকা দেওয়ার ব্যবস্থা করে দেয়। পুরস্কার মূল্য ১০ হাজার টাকার নিচে হলে তো কথাই নেই, হাতে হাতে দিয়ে দেওয়া হয় সেই টাকা। তবে পুরস্কার মূল্য বেশি হলে সময় লাগে কয়েক দিন। অন্যদিকে আবার রাজ্য লটারির দপ্তর জানাচ্ছে, লটারির পুরস্কার বিজয়ীদের টাকা দেওয়া হয় ব্যাঙ্কের মাধ্যমে। প্রয়োজনীয় কাগজের সঙ্গে এখানে জমা দিতে হয় একটি ক্যানসেল চেক।

কোটি টাকা জিতলে পুরো টাকাটাই কি পাওয়া যায় ?

দশ হাজারের উপরে যে কোনও পুরস্কার মূল্যের জন্য ট্যাক্স দিতে হয়। রাজ্য লটারি দপ্তর সূত্রে খবর, ৩০ শতাংশ টাকা ইনকাম ট্যাক্স হিসেবে দিতে হয়। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় তথ্য বিশদে দেওয়া থাকে টিকিটের পেছনে। তাই টিকিট কেটে তার পিছনের সব তথ্য ভালো করে পড়ে নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য লটারির কর্তারা। ইনকাম ট্যাক্স ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের ট্যাক্স, কমিশন মিলিয়ে পুরস্কার মূল্য থেকে প্রায় ৩৫ শতাংশ টাকা কেটে নেওয়া হয়। কেউ যদি এক কোটি টাকা পুরস্কার পান, তবে তিনি হাতে পাবেন ৬৫ লাখ টাকার মতো। এই ৩৫ শতাংশের মধ্যেই ধরা থাকে এজেন্সির কমিশন। অর্থাৎ ক্রেতা যে পুরস্কার বাবদ টাকা পেয়েছেন, তার থেকে টাকা দাবি করতে পারেন না লটারির বিক্রেতা কিংবা এজেন্ট। কারণ, তাঁদের জন্য নির্দিষ্ট কমিশনের ব্যবস্থা রেখেছে রাজ্য লটারি দপ্তর।

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  আয়না ২০১৮

  MAJOR CITIES