• A
  • A
  • A
শ্রেণির মধ্যে শ্রেণি বিভাজন করতে চাইছে রাজ্য ? DA মামলায় বলল হাইকোর্ট

কলকাতা, ৭ জুন : কলকাতা হাইকোর্টে আজ DA সংক্রান্ত নথি পেশ করল রাজ্য। অ্যাডভোকেড জেনেরাল (AG) কিশোর দত্ত DA সংক্রান্ত তালিকা জমা দেন।

শুনুন আমজ়াদ আলির বক্তব্য


২০১৫ সালে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনাল (SAT) বলেছিল, রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের DA হল সরকারের দয়ার দান। যার সমালোচনা করে ডিভিশন বেঞ্চ। মামলা চলাকালীন বিচারপতি দেবাশিস করগুপ্ত SAT-এর করা মন্তব্য নিয়ে বলেন, ট্রাইবুনাল সরকারি কর্মচারীদের স্বার্থের কথা তো ভাবেনি বরঞ্চ সমস্যা থেকে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছে। এবং কেন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা DA পাবেন না তারও কোনও ব্যাখ্যা ছিল না। তাহলে কেন রাজ্য সরকার SAT-এর রায়ের উপর নির্ভর করে আদালতে বক্তব্য রাখছে। কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে রাজ্য সরকারের DA-র ফারাক কেন?


DA-র ফারাক প্রসঙ্গে AG বলেন, বড় ভাইয়ের ছেলেকে তিনটে চকোলেট। আর ছোটোভাইয়ের ছেলেকে দুটো চকোলেট কেন দেওয়া হল তার কোনও ব্যাখ্যা হয় না। এর প্রেক্ষিতে বিচারপতি পালটা প্রশ্ন করেন, দিল্লির বঙ্গভবন ও চেন্নাইয়ের ইয়ুথ হস্টেলে যে সমস্ত রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা রয়েছেন তাঁরা কেন্দ্রীয় সরকারের হারে DA পান। তাহলে কেন রাজ্যে থাকা রাজ্য সরকারি কর্মীরা সেই হারে DA পান না? তাহলে কি এটা ভেবে নেব, রাজ্য সরকার শ্রেণির মধ্যে শ্রেণি বিভাজন করতে চাইছে। যা সংবিধানের ১৪ নম্বর ধারা লঙ্ঘিত করে। যদিও এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেননি AG কিশোর দত্ত।

তিনি দাবি করেন, ২০০৫ সালে ২ শতাংশ, ২০০৮ সালের জুন মাসে ৬ শতাংশ, ফের ২০০৮ সালের নভেম্বরে ৯ শতাংশ, ২০০৯-এর ১৮ শতাংশ এবং ২০১৮-র জানুয়ারি মাসে রাজ্য সরকারি কর্মীদের DA দেওয়া হয়েছে।

মামলার পরবর্তী শুনানি ৩ জুলাই।

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  জনমত পঞ্চমত ২০১৮

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  MAJOR CITIES