• A
  • A
  • A
"আমি আপনার অধস্তন কর্মী নই", BDO-র শোকজ়ের উত্তর BMOH-এর

জলপাইগুড়ি, ৪ নভেম্বর : মাসিক উন্নয়ন বৈঠকে অনুপস্থিত ছিলেন BMOH। সেই কারণে তাঁকে শোকজ় চিঠি পাঠিয়েছিলেন BDO। যদিও বৈঠকে অনুপস্থিত থাকার কারণ জানানো তো দূরের কথা উলটে BMOH জানালেন শোকজ় করার অধিকারই নেই BDO-র। কারণ, BDO-র পদ ও BMOH-র পদমর্যাদা একই। শুধু তাই নয়, BDO-কে ভবিষ্যতে সঠিক পদ্ধতিতে সিল করা খামে কাউকে শোকজ়ের চিঠি পাঠাতেও পরামর্শ দিলেন।

সব্যসাচী মণ্ডল ও রবিপ্রকাশ মীনা


ঘটনাটি জলপাইগুড়ি জেলার ধুপগুড়ির। মুখ্যমন্ত্রীর সফরের আগে ২৯ অক্টোবর ধুপগুড়ি ব্লকে মাসিক উন্নয়ন বৈঠক ছিল। সেই বৈঠকে ধুপগুড়ির BMOH সব্যসাচী মণ্ডল উপস্থিত ছিলেন না। এরপরই ধুপগুড়ির BDO রবিপ্রকাশ মীনা তাঁকে বৈঠকে উপস্থিত না থাকার জন্য কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়ে চিঠি (মেমো নম্বর- ৩৭৬২/BDO-DPG-I) পাঠান। তিনদিনের মধ্যে BMOH-কে জবাব দিতে বলা হয়েছিল চিঠিতে।
চিঠি পেয়ে ধুপগুড়ির BMOH সব্যসাচী মণ্ডল উত্তরে (মেমো নম্বর-১১৭৮) BDO রবিপ্রকাশ মীনাকে লিখেছেন, "আমি আপনার অধস্তন কর্মচারী নই। সুতরাং আমাকে কারণ দর্শানোর জন্য আপনি চিঠি দিতে পারেন না। আর আমি আপনাকে জবাব দিতে বাধ্য নই। কারণ আমার ও আপনার পদমর্যাদা একই। আপনার যদি আমার বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ থাকে, অভিযোগের তদন্তের প্রয়োজন হয় তবে আপনি হায়ার অথরিটির কাছে জানান। এছাড়া, আরও একটি পরামর্শ আপনাকে দিই, কাউকে কারণ দর্শানোর চিঠি দিতে হলে আগে সঠিক তদন্ত করুন। দেখুন যাকে আপনি চিঠি পাঠাচ্ছেন তিনি আপনার সমপদে রয়েছেন না আপনার অধস্তন কর্মী। এবং অবশ্যই সিল করা খামে পদ্ধতি মেনে শোকজ়ের চিঠি দেওয়া উচিত।"


ধুপগুড়ি ব্লকের দুই আধিকারিকের কাজিয়াকে কেন্দ্র করে প্রশাসনির মহল সরগরম। এই চিঠিগুলি ইতিমধ্যেই সোশাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়েছে বলেও জানা যাচ্ছে। এই বিষয়ে ধুপগুড়ির BMOH সব্যসাচী মণ্ডল বলেন, "আমি সংবাদমাধ্যমে কোনও মন্তব্য করতে চাই না। তবে শোকজ়ের উত্তর যা দেওয়ার দিয়েছি।" বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনের কোনও পদস্থ কর্তা মন্তব্য করতে চাননি।

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  পুজোর খবর

  MAJOR CITIES