• A
  • A
  • A
চন্দননগরে কাউন্সিলরের সামনে পশুপ্রেমী যুবতিকে অর্ধনগ্ন করে মারধরের অভিযোগ

চন্দননগর, ১১ ফেব্রুয়ারি : সন্তানদের সরিয়ে রাখা হচ্ছে বলে এর আগে বেশ কয়েকজনকে কামড়েছে মা কুকুর। এনিয়ে স্থানীয়রা আগেই প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন। কিন্তু, তা সত্ত্বেও বাচ্চাগুলিকে ছাড়েননি পশুপ্রেমী যুবতি। এজন্য স্থানীয় অনেকেরই রাগ ছিল। সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে বচসা বাধে। এমনকী ওই পশুপ্রেমী যুবতিকে মারধর করা হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠল। প্রতিবেশী এক যুবক এবং তাঁর পরিবার স্থানীয় কাউন্সিলরের সামনেই তাঁকে অর্ধনগ্ন করে বাঁশ দিয়ে মারধর করেছেন বলে অভিযোগ। আরও অভিযোগ, স্ত্রী এবং পড়শি কয়েকজন মহিলাকে ডেকে মারধর করানো হয়েছে। এদিকে পালটা তাঁকে খারাপ কথা শোনানো হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন ওই যুবক। আজ সকালে চন্দননগরের সুরপাড়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। এনিয়ে চন্দননগর থানায় অভিযোগ জানিয়েছেন যুবতি।

ছবি-প্রহৃত যুবতি প্রহৃত মহিলা ও অভিযুক্তর বক্তব্য শুনুন


পশুপ্রেমী ওই যুবতি তাঁর বাড়িতে রাস্তার ১২টি কুকুরের পরিচর্যা করেন। রাস্তার একটি কুকুরের বেশ কয়েকটি সন্তান রয়েছে। অভিযোগ, কুকুরের বাচ্চাগুলিকে একটি ঘরে আটকে রাখেন ওই যুবতি। আর তাদের মা রাস্তায় ঘোরাঘুরি করে। সন্তানদের না দেখতে পেয়ে মাঝেমধ্যেই খেপে ওঠে মা কুকুর। তাই একে ওকে কামড়ে দেয়। স্থানীয় বেশ কয়েকজনকে কামড়েছে।


এনিয়ে স্থানীয়রা বেশ কয়েকবার প্রতিবাদ করেছেন। কিন্তু, তাতেও কুকুর ছানাগুলিকে ওই যুবতিকে ছাড়েননি বলে অভিযোগ। এনিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে অসন্তোষ ছিল। ঘটনাকে কেন্দ্র করে আজ সকালে স্থানীয় যুবক টুকাই গাঙ্গুলির সঙ্গে বচসা বাধে ওই যুবতির। বিবাদ চরম আকার নিলে তাঁদের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়ে যায় বলে অভিযোগ।

ওই যুবতির অভিযোগ, সেইসময় তাঁকে মারধর ও গালিগালাজ করা হয়। তাঁর জামা ছিঁড়ে দেওয়া হয়েছে। টুকাই তাঁর স্ত্রী এবং কয়েকজন মহিলাকে ডেকে তাঁকে মারধর করান। তাঁকে অর্ধনগ্ন করে বাঁশ দিয়ে পেটানো হয়েছে। ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কবিতা দাস ব্যানার্জির সামনেই এসব চলে। এব্যাপারে তিনি কোনও ব্যবস্থা নেননি। তিনি জানান, ঘটনায় চন্দননগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

টুকাই গাঙ্গুলি অবশ্য অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তাঁর বক্তব্য, “পাড়ায় কুকুর কামড়ানোর ঘটনা বলতে গেলে প্রতিদিন আমাকে গালিগালাজ করতেন। ওর গায়ে হাত দেওয়া হয়নি।”

কাউন্সিলর বলেন, “একটি মা কুকুরকে ছেড়ে দিয়ে বাচ্চা কুকুরগুলিকে আটকে রেখেছেন ওই যুবতি। তাতেই মানুষকে কামড়াচ্ছে মা কুকুরটি। আগের দিনই কুকুরগুলিকে ছেড়ে দিতে বলেছিলাম। উনি শোনেননি। উপরন্তু আজ সকালে আমার সামনেই টুকাই ও তাঁর পরিবারকে ওই যুবতি মারধর করেন। আমি চাই, পাড়ার সকলে শান্তিতে থাকুন। আর উনি কুকুরগুলি ছেড়ে দিন।”

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  পুজোর খবর

  MAJOR CITIES