• A
  • A
  • A
আগামী লোকসভা নির্বাচনে ২০টি আসনও পাবে না তৃণমূল : মুকুল রায়

চুঁচুড়া, ৯ জানুয়ারি : শিল্প, বিশ্ববাংলা, রামনবমি সহ একাধিক ইস্যুতে রাজ্য সরকারকে আক্রমণ করলেন মুকুল রায় ও দিলীপ ঘোষ। আজ চুঁচুড়ার DI অফিসের মাঠের সভা থেকে আক্রমণ করেন তাঁরা। পাশাপাশি মুকুল রায় বলেন, “২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল ২০টি আসনও পাবে না।”

শুনুন মুকুল রায়ের বক্তব্য


আজকের সভা থেকে মুকুল রায় বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী বিভিন্ন শিলান্যাস করছেন। বলছেন কোটি কোটি টাকার শিল্প আসছে। কিন্ত কোন শিল্প এসেছে? শিল্পের নামে বালি তোলা হচ্ছে। কয়লা তোলা হচ্ছে। এটাই শিল্প তৃণমূলের কাছে। এতে মানুষ ফুঁসছে তৃণমূলের উপর। শুধু আগুনটা লাগাতে হবে।”


পাশাপাশি তিনি বলেন, “তৃণমূলের প্রত্যেকে এখন গুন্ডামি করছে। আমি এদেরকে প্রত্যেককে চিনি। এদের বলে কোনও লাভ নেই। কারণ তৃণমূল এখন আর দল নেই। ওটা প্রাইভেট লিমিটেড কম্পানি। পিসি ভাইপোর কম্পানি। যেখানে আলোচনার কোনও জায়গা নেই।”

মুকুল রায় তৃণমূলকে সতর্ক করে বলেন, “বাঁশবেড়িয়া পৌরসভা, ভদ্রেশ্বর পৌরসভা ও চন্দননগর পৌরনিগম টলমল করছে। যে কোনও দিন চলে যাবে। তৃনমূলের হাতে আর থাকবে না। আমার সঙ্গে মাটির স্তরের কর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ আছে। আমার যা যোগাযোগ আছে তা কোনও গোয়েন্দা লাগিয়ে বন্ধ করা যাবে না।”

অন্যদিকে রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, “রাজ্য সরকারের তরফে রামনবমিতে অস্ত্র মিছিল বন্ধ করা হয়েছে। এমন অস্ত্র তৈরি করতে হবে যাতে কেউ বাধা দিতে না পারে। যে বাধা দিতে আসবে সে যেন দূর থেকে অস্ত্রে চকচকানি দেখে থেমে যায়।” সিঙ্গুর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “সারা রাজ্য সবুজ। গ্রামের মাঠেঘাটে সবুজ ধান। সেখানে সিঙ্গুরের মাঠে কাশফুল। দেখতে ভালো লাগে। কিন্তু দেখতে ভালো লাগলে তো আর চাষ হবে না। বামফ্রন্ট টাকা খেয়ে টাটাদের কারখানার করতে জমি দিল। মুখ্যমন্ত্রী সেই জমির কাগজ মালিকদের দিল। কাগজে তো আর চাষ হয়না।”

CLOSE COMMENT

ADD COMMENT

To read stories offline: Download Eenaduindia app.

SECTIONS:

  হোম

  রাজ্য

  দেশ

  বিদেশ

  ক্রাইম

  খেলা

  বিনোদন-E

  ইন্দ্রধনু

  অনন্যা

  গ্যালারি

  ভ্রমণ

  ଓଡିଆ ନ୍ୟୁଜ

  পুজোর খবর

  MAJOR CITIES